স্ত্রী হত্যার ১৯ বছর পর স্বামীর ফাঁসি কার্যকর স্ত্রী হত্যার ১৯ বছর পর স্বামীর ফাঁসি কার্যকর – Narail news 24.com
শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৯:৩৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
নড়াইলে দুই মাদক ব্যাবসায়ীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড কংগ্রেসম্যানদের সই জালকারী বিএনপি একটি জালিয়াত রাজনৈতিক দল মন্তব্য পররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রধানমন্ত্রী শ্রমিকদের জন্য সব কিছু করে যাচ্ছেন – বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী জুজুৎসুর নিউটনের ‘ভয়ংকর’ যৌন নিপীড়নের তথ্য জানালো র‍্যাব ভাঙ্গা-বেনাপোল রেলপথে আগামী অক্টোবর থেকে বাণিজ্যিকভাবে ট্রেন চলবে – রেলপথমন্ত্রী নড়াইলে হুইপ মাশরাফির বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে আওয়ামী লীগ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে – প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র প্রত্যাবর্তন মুক্তিযুদ্ধের হারিয়ে যাওয়া মূল্যবোধের প্রত্যাবর্তন – কাদের যে পরিকল্পনায় খুন হন মল্লিকপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জানালো র‌্যাব এক আতঙ্কিত জনপদের নাম লোহাগড়া !

স্ত্রী হত্যার ১৯ বছর পর স্বামীর ফাঁসি কার্যকর

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১০ জুন, ২০২১

 নড়াইল নিউজ ২৪.কম ডেস্ক:

স্ত্রীকে হত্যার দায়ে আব্দুল হক নামে এক আসামির ১৯ বছর পর ফাঁসি কার্যকর হয়েছে দিনাজপুর জেলা কারাগারে। বুধবার দিবাগত রাত ১২ টা ১ মিনিটে তার ফাঁসি কার্যকর হয়। দিনাজপুর জেল সুপার মোকাম্মেল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এরপর মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এর আগে বিকেলে আবদুল হকের পরিবারের ১৫ সদস্য (নিকটাত্মীয়) শেষ সাক্ষাৎ করেন। তারা তার সঙ্গে দীর্ঘ প্রায় এক ঘণ্টা ধরে কথা বলেন এবং খাবার খাইয়ে চলে যান। পরে রাতে তার ফাঁসি কার্যকর হয়। এ সময় জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, সিভিল সার্জন ছাড়াও রংপুর ডিআইজি (প্রিজন) আলতাফ হোসেন, কারা চিকিৎসকসহ পদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আব্দুল হকের বাড়ি রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার ভক্তিপুর চৌধুরীপাড়া এলাকায়। ২০০২ সালের ২৮ আগস্ট থেকে তিনি কারাগারে বন্দি ছিলেন।

কারা সূত্রে জানা গেছে, আবদুল হক ২০০২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তার স্ত্রীকে হত্যা করেন। পরে তার শাশুড়ি বাদী হয়ে ২০০২ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি মিঠাপুকুর থানায় একটি হত্যা মামলা করে। মামলা নং ১৫। ২০০৭ সালের ৩ মে রংপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ আবদুল হককে মৃত্যুদণ্ড দেন।

সর্বশেষ আব্দুল হক রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণ ভিক্ষার আবেদন করেন। গত বছরের ১৮ মে মামলাটির যাবতীয় বিবেচনায় রাষ্ট্রপতি প্রাণভিক্ষার আবেদন না মঞ্জুর করলে ফাঁসি কার্যকরের উদ্যোগ নেয় কারা কর্তৃপক্ষ। সে হিসেবেই রাজশাহী থেকে ওহিদুল ইসলাম নামে একজন জল্লাদের মাধ্যমে ৯ জুন দিবাগত রাতে আব্দুল হকের ফাঁসি কার্যকর হয়।

© এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ফেসবুকে শেয়ার করুন

More News Of This Category
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin
x