ভাসানচরে মানবিক সহায়তায় জাতিসংঘের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর ভাসানচরে মানবিক সহায়তায় জাতিসংঘের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর – Narail news 24.com
বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ০৮:৩৩ অপরাহ্ন

ভাসানচরে মানবিক সহায়তায় জাতিসংঘের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ৯ অক্টোবর, ২০২১

নড়াইল নিউজ ২৪.কম ডেস্ক:

জাতিসংঘের সংশ্লিষ্ট সংস্থা ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের জন্য মানবিক কার্যক্রমের বিস্তার বাড়াতে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে সমঝোতা স্মারকে স্বক্ষর করেছেন । সচিবালয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ে শনিবার সকালে সমঝোতা স্মারকে সই করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মহসীন ও ইউএনএইচসিআরের প্রতিনিধি জোনাস ভ্যান ডেক ক্লাউ।

এই সমঝোতার ফলে ভাসানচরে খাদ্য ও পুষ্টি, সুপেয় পানি, পয়োনিষ্কাশন, চিকিৎসাসহ মানবিক কার্যক্রমে সরকারকে সহযোগিতা করবে জাতিসংঘ।

মিয়ানমারে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের শিকার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তর নিয়ে জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থাগুলো শুরুতে আপত্তি তুললেও ভাসানচর ঘুরে দেখে তাদের অবস্থান পরিবর্তন করেছে। এর অংশ হিসেবেই ভাসানচরের রোহিঙ্গাদের জন্য মানবিক সহায়তা বাড়াতে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে যুক্ত হলো ইউএনএইচসিআর।

কক্সবাজারে শরণার্থী শিবির ও তার বাইরে অবস্থান নেয়া প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গাকে নিয়ে দেখা দেয় নানা সামাজিক সমস্যা। তারই পরিপ্রেক্ষিতে এক লাখ রোহিঙ্গাকে হাতিয়ার কাছে মেঘনার মোহনার দ্বীপ ভাসানচরে স্থানান্তরের পরিকল্পনা নেয় সরকার।

সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে ২ হাজার ৩১২ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৩ হাজার একর আয়তনের ওই চরে ১২০টি গুচ্ছগ্রামের অবকাঠামো তৈরি করে ১ লাখের বেশি মানুষের বসবাসের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

কয়েক ধাপে ভাসানচরে এখন পর্যন্ত ১৮ হাজার ৮৫৯ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে পুনর্বাসন করা হয়েছে। বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত বিভিন্ন দফায় আশ্রয় নেয়া মোট রোহিঙ্গা শরণার্থী ১১ লাখের ওপরে। সরকারের লক্ষ্য আরও ৮০ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা শরণার্থীকে ভাসানচরে স্থানান্তর করা।

রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তর নিয়ে চলতি বছরের ৬ জুন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অন্তত ১০টি দেশের রাষ্ট্রদূত ও হাইকমিশনার, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও ইউএনএইচসিআরের প্রতিনিধি, পররাষ্ট্রসচিব, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণসচিবসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

ওই বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. আহমদ কায়কাউস বলেন, ‘ইউএন হলো ম্যান্ডেট। পৃথিবীর যেকোনো জায়গায় এ ধরনের শরণার্থী যদি হয়, তারাই লুক আফটার করবে। ইউএন গেলে অবশ্যই আমাদের জন্য সুবিধা। রোহিঙ্গাদের খাদ্যের চিন্তা করতে হবে না। পুরো ম্যানেজমেন্ট ইউএন করবে। আমরা তাদের সহযোগিতা করব।’

ভাসানচরে কাজ করছে ৪৯টি এনজিও:

জাতিসংঘ এত দিন যুক্ত না হলেও ভাসানচরে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর খাদ্য ও শিক্ষা সহায়তা নিয়ে এগিয়ে এসেছে এনজিও খাত।

এনজি ব্যুরো জানিয়েছে, বর্তমানে ৫৩টি দেশি-বিদেশি বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা (এনজিও) ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের সহায়তায় কাজ করতে নিবন্ধিত হয়েছে। এর মধ্যে চারটি এনজিও এখনও কী প্রকল্পে কাজ করতে চায়, সে বিষয়ে বিস্তারিত পরিকল্পনা তুলে ধরেনি। অর্থাৎ এ মুহূর্তে কাজ করছে ৪৯টি এনজিও।

© এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ফেসবুকে শেয়ার করুন

More News Of This Category
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin
x