নিষিদ্ধ সংগঠন আনসার আল ইসলামের ৪ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব নিষিদ্ধ সংগঠন আনসার আল ইসলামের ৪ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব – Narail news 24.com
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০৪:৪৫ পূর্বাহ্ন

নিষিদ্ধ সংগঠন আনসার আল ইসলামের ৪ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১
ছবি সংগৃহীত

নড়াইল নিউজ ২৪.কম ডেস্ক:

যশোরের মনিরামপুর  নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন আনসার আল ইসলামের ৪ সক্রিয় সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-৬। মনিরামপুর থানার ৩ নং ভোজগাতী ইউনিয়নের চালকিডাঙ্গি গ্রাম থেকে তাদের আটক করা হয়। রোববার র‌্যাব-৬ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (লিগ্যাল ও মিডিয়া) মো. বজলুর রশীদ স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

আটকরা হলেন- মনিরামপুরের আব্দুল্লাহ আল গালিব (২৪), যশোর সদরের মো. জাফর হোসেন ওরফে শিমুল খান (২১), নাদির হোসেন (৩০) ও মনিরামপুরের মুহাম্মদ আলী শেখ (২১)।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শনিবার র‌্যাব-৬ এর একটি দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে যশোরের মনিরামপুর থানার ৩ নং ভোজগাতী ইউনিয়নের চালকিডাঙ্গি গ্রাম থেকে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের চার সদস্যকে আটক করে। এ সময় তাদের কাছ থেকে উগ্রবাদী নথিপত্র, একটি ল্যাপটপ এবং পাঁচটি মোবাইল জব্দ করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি স্বীকার করেছে।

এতে আরও বলা হয়, আটক আব্দুল্লাহ আল গালিব একটি স্বনামধন্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞানের ছাত্র। ২০১৯ সালে আনসার আল ইসলামের আধ্যাত্মিক নেতা জসিম উদ্দিন রহমানির অডিও লেকচার শুনে তিনি উগ্রপন্থী ও জঙ্গি কার্যক্রমে উদ্বুদ্ধ হন। পরবর্তীতে স্থানীয় একটি মাদরাসায় পড়াশোনা শুরু করেন। নিজ আগ্রহে তিনি বিভিন্ন উগ্রবাদী ‘সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম গ্রুপে’ অংশগ্রহণ করেন। উগ্রবাদ বিষয়ক বিভিন্ন ভিডিও ও অডিও লেকচার শেয়ার করে আনসার আল ইসলামের দাওয়াতি কার্যক্রম অব্যাহত রাখেন।

জাফর আহম্মেদ ওরফে শিমুল খান ২০১৯ সালে এইচএসসি পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ার পর স্থানীয় একটি মাদরাসায় পড়াশোনা শুরু করে। সেখানে তার পরিচয় হয় জঙ্গি মুহাম্মদ শেখের সঙ্গে। মুহাম্মদ শেখের সঙ্গে জঙ্গিবিষয়ক বিভিন্ন আলোচনার সময় তিনি গালিবের সঙ্গে মুহাম্মদ শেখকে পরিচয় করে দেয়। গালিব, জাফর, মুহাম্মদ শেখ ও নাদির পরস্পর উগ্রপন্থী বই, অডিও বক্তব্য শেয়ার করে জঙ্গি বিষয়ক বিভিন্ন বিষয়ে তৎপর হয়ে ওঠে।

মুহাম্মদ শেখ ২০২০ সালে পড়ালেখারত অবস্থায় বিভিন্ন ধরনের উগ্রপন্থী বই ও বক্তব্যের প্রতি কৌতুহলী হয়ে ওঠে। পরবর্তীতে তিনি ঢাকায় একটি প্রতিষ্ঠানে সিকিউরিটি গার্ডের চাকরি শুরু করেন। চাকরিরত অবস্থায় জনৈক ব্যক্তির কাছ থেকে ‘আনসার আল ইসলামের’ আধ্যাত্মিক নেতা জসিম উদ্দিন রহমানির বয়ান এবং ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে’ তার চ্যানেল সম্পর্কে জানতে পারে। পরবর্তীতে তিনি আব্দল্লাহ আল গালিবের কাছ থেকে জঙ্গি মতাদর্শ সম্পর্কে সম্যক ধারণা লাভ করে।

এ ছাড়া আটক নাদির হোসেন প্রাথমিকভাবে জসিম উদ্দিন রহমানির জঙ্গিবাদ বক্তৃতায় উদ্বুদ্ধ হয় এবং ‘আনসার আল ইসলামের’ সক্রিয় সদস্য হিসেবে কার্যক্রম শুরু করে। তিনি বিভিন্ন ব্যক্তিকে আনসার আল ইসলামের দাওয়াতি কার্যক্রমে আত্মনিয়োগ করে।

© এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ফেসবুকে শেয়ার করুন

More News Of This Category
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin
x