দির্ঘ ৯ মাস পর ১০ লাখ ডোজ টিকা পাঠাচ্ছে সিরাম দির্ঘ ৯ মাস পর ১০ লাখ ডোজ টিকা পাঠাচ্ছে সিরাম – Narail news 24.com
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০৪:১৪ পূর্বাহ্ন

দির্ঘ ৯ মাস পর ১০ লাখ ডোজ টিকা পাঠাচ্ছে সিরাম

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ৯ অক্টোবর, ২০২১

নড়াইল নিউজ ২৪.কম ডেস্ক:

অবশেষে দির্ঘ ৯ মাস বিরতির পর বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের সঙ্গে চুক্তির বাকি টিকা পাঠাতে শুরু করেছে ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট। এর অংশ হিসেবে শনিবার বিকেলেই সিরাম থেকে ১০ লাখ ডোজ কোভিশিল্ড টিকার একটি চালান ঢাকায় পৌঁছানোর কথা।

বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে চালানটি পৌঁছাবে বলে জানিয়েছে ঢাকায় ভারতের হাইকমিশন।

গত বছরের ৫ নভেম্বর সিরাম থেকে ৩ কোটি ডোজ টিকা কেনার সমঝোতা স্মারক সই হয়। এ বিষয়ে ১৩ ডিসেম্বর সিরাম ইনস্টিটিউট, বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মধ্যে চুক্তি হয়।

চুক্তি অনুযায়ী চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত তিন মাসে বাংলাদেশকে দেড় কোটি ডোজ টিকা দেয়ার কথা সিরামের। কিন্তু ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত দুই চালানে ৭০ লাখ ডোজ টিকা পাঠানোর পর ভারতে অভ্যন্তরীণ চাহিদার কারণে টিকা পাঠানো বন্ধ করে দেয় প্রতিষ্ঠানটি।

অবশ্য কেনা টিকার বাইরে ভারত সরকার উপহার হিসেবে বাংলাদেশকে আরও ৩২ লাখ ডোজ টিকা দিয়েছে। সব মিলিয়ে সিরাম থেকে ১ কোটি ২ লাখ ডোজ কোভিশিল্ড টিকা আসে দেশে।

এই টিকা দিয়েই দেশে করোনারোধী টিকা কার্যক্রম শুরু হয়। সিরাম হঠাৎ টিকা পাঠানো বন্ধ করে দিলে টিকা কার্যক্রম নিয়ে অনেকটা সংকটে পড়ে বাংলাদেশ। ফলে টিকার জন্য বিকল্প উৎসের সন্ধানে নামে সরকার।

এর অংশ হিসেবে চীনের সিনোফার্ম থেকে টিকা কেনে সরকার। এ ছাড়া করোনার টিকা ন্যায্যতার ভিত্তিতে বণ্টনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার উদ্যোগে গড়ে তোলা প্ল্যাটফর্ম কোভ্যাক্স থেকেও টিকা পাচ্ছে বাংলাদেশ। ফলে সিরাম টিকা দেয়া বন্ধ করার পর যে সংকট তৈরি হয়েছিল তা কেটে যায়।

এর মধ্যে ভারতে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। তাই নিজেদের চাহিদা মিটিয়ে ফের অন্যান্য দেশে টিকা পাঠানোর উদ্যোগ নিয়েছে সিরাম। শুক্রবার বাংলাদেশ, নেপাল, মিয়ানমার ও ইরানে করোনার টিকা রপ্তানির জন্য সিরামকে অনুমোদন দেয় ভারত সরকার।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, চলতি মাসেই ‘ভ্যাকসিন মৈত্রী’ কর্মসূচির আওতায় ১০ লাখ করে কোভিশিল্ড টিকা পাবে বাংলাদেশ, নেপাল ও মিয়ানমার।

সিরাম ইনস্টিটিউট প্রতি মাসে কোভিশিল্ডের ২০ কোটির বেশি ডোজ উৎপাদন করতে সক্ষম। তারা দেশটির সরকারকে জানিয়েছে, চলতি অক্টোবরেই ২২ কোটি ডোজ সরবরাহ করা সম্ভব।

এর আগে ভারতের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মান্দাভিয়া জানান, ভারত ‘ভ্যাকসিন মৈত্রী’ কর্মসূচির আওতায় অক্টোবরে টিকা রপ্তানি আবার শুরু করবে।

© এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ফেসবুকে শেয়ার করুন

More News Of This Category
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin
x