তালেবানরা নারীদের ভোটাধিকারের সংবিধানে ফিরছে তালেবানরা নারীদের ভোটাধিকারের সংবিধানে ফিরছে – Narail news 24.com
বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ১০:২৪ অপরাহ্ন

তালেবানরা নারীদের ভোটাধিকারের সংবিধানে ফিরছে

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১

নড়াইল নিউজ ২৪.কম আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

তালেবানের ভারপ্রাপ্ত বিচারমন্ত্রী মৌলভি আব্দুল হাকিম শারাঈ এক বিবৃতিতে জানান, আফগানিস্তানে ক্ষণস্থায়ী গণতন্ত্রের ‘স্বর্ণযুগ’ সময়ের সংবিধান ফের বলবৎ করার পরিকল্পনা করছে দেশটির অন্তর্বর্তীকালীন সরকার। ইসলামপন্থি গোষ্ঠীটি মঙ্গলবার এ কথা জানায় বলে বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

নারীদের ভোট দেয়ার অনুমোদন রেখে প্রণীত ১৯৬৪ সালে রাজা জহির শাহ আমলের সংবিধান সাময়িকভাবে গ্রহণ করতে যাচ্ছে তালেবান।

আব্দুল হাকিম বলেন, ‘আফগানিস্তানের সাবেক রাজা মোহাম্মদ জহির শাহর শাসনামলের সংবিধান সাময়িকভাবে গ্রহণ করবে ইসলামি আমিরাত।’

তিনি বলেন, ‘তবে সংবিধানের কোনো ধারা ইসলামি শরিয়া আইন ও ইসলামি আমিরাতের নীতির পরিপন্থি হলে সে ক্ষেত্রে তা খারিজ করা হবে।

‘রাজতন্ত্র আমলের সংবিধান প্রয়োজন পড়লে কিছু ক্ষেত্রে সংশোধন করা হবে।’

প্রায় ছয় দশক আগে বিশ্বের শক্তিশালী দেশগুলো আফগানিস্তানে আগ্রাসন চালায়।

আগ্রাসনের আগে রাজা মোহাম্মদ জহির শাহর আমলে প্রায় এক দশক সাংবিধানিক রাজতন্ত্রের মধ্য দিয়ে যায় আফগানরা।

১৯৬৩ সালে রাজা জহির আফগানিস্তানের ক্ষমতায় বসেন। এর এক বছর পর ওই সংবিধানের অনুমোদন দেন তিনি।

প্রায় ১০ বছর দীর্ঘ জহিরের শাসনামলে আফগানিস্তানে সংসদীয় গণতন্ত্র ছিল। ১৯৭৩ সালে তাকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়।

১৯৬৪ সালের সংবিধানটি প্রথমবারের মতো আফগান নারীদের ভোট দেয়ার অধিকার দেয়। পাশাপাশি এটি নারীদের রাজনীতিতে সক্রিয় অংশগ্রহণের পথও প্রশস্ত করে।

তালেবানের নীতির সঙ্গে সংবিধানটির ওই ধারা সাংঘর্ষিক।

তবে গত মাসের মাঝামাঝি সময়ে আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার পর আগের শাসনের কঠোর বিধানের পুনরাবৃত্তি না হওয়ার অঙ্গীকার করেছিল তালেবান।

বিশেষ করে নারীদের ঘরে-বাইরে কাজ করার পাশাপাশি তাদের শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ দেয়ার কথা জানিয়েছিল তালেবান।

এ ছাড়া আফগান রাজনীতিতে অংশগ্রহণে নারীদের প্রতি আহ্বান জানায় গোষ্ঠীটি। নারীসহ অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠনের অঙ্গীকার করে তালেবান।

তবে চলতি মাসের শুরুতে তালেবান গঠিত নতুন সরকারে কোনো নারীকে দেখা যায়নি। ছিল না জাতিগত সম্প্রদায়ের কোনো প্রতিনিধি।

আশির দশকে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন আফগানিস্তান দখল করে। এরপর দেশটি গৃহযুদ্ধের মধ্য দিয়ে যায়। ১৯৯৬ সালে প্রথম আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করে তালেবান।

২০০১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন ন্যাটোভুক্ত দেশগুলোর সামরিক অভিযানে উৎখাত হয় তালেবান।

এরপর দীর্ঘ দুই দশক আফগানিস্তানের ক্ষমতায় থাকে পশ্চিমা দেশ সমর্থিত সরকার, যাকে ১৫ আগস্ট ক্ষমতা থেকে হটায় তালেবান।

© এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ফেসবুকে শেয়ার করুন

More News Of This Category
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin
x