তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে সন্ত্রাসী হামলায় ৪ সাংবাদিক আহত তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে সন্ত্রাসী হামলায় ৪ সাংবাদিক আহত – Narail news 24.com
বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৫১ পূর্বাহ্ন

তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে সন্ত্রাসী হামলায় ৪ সাংবাদিক আহত

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২৯ জানুয়ারী, ২০২২

নড়াইল নিউজ ২৪.কম ডেস্ক:

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে হামলায় আহত হলেন ৪ সাংবাদিক। সদর উপজেলার সেনুয়া ইউনিয়নের মণ্ডলপাড়ায় শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) একেএম আতিকুর রহমান।
আহত ওই চার সাংবাদিক হলেন নিউজবাংলা টোয়েন্টিফোর ডট কমের ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি সোহেল রানা, ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগো নিউজের ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি তানভীর হাসান তানু, রাইজিং বিডির ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি হিমেল এবং দৈনিক উষার বাণীর জাহিদ হাসান মিলু।

আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে এই হামলার অভিযোগ উঠেছে। তবে নৌকার প্রার্থী বলেছেন, সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালিয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থী আতাউর রহমানের কর্মী-সমর্থকরা।

আহত সোহেল রানা জানান, মণ্ডলপাড়ায় উঠান বৈঠককে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের প্রার্থী নোবেল কুমার সিংহ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মোটরসাইকেল প্রতীকের আতাউর রহমানের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সাংবাদিকরা সেই ঘটনার তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে নৌকার প্রার্থীর লোকজন তাদের সেখান থেকে চলে যেতে বলেন।

তিনি বলেন, ‘এরপর ১০ থেকে ১২ জন তানু ও আমাকে বাঁশের লাঠি ও দেশী অস্ত্র দিয়ে মারধর করেন। হিমেল তাদের বাঁচাতে গেলে তাকেও মারা হয়। এ সময় আহত হন জাহিদ। ভাঙচুর করা হয় ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের ক্যামেরা ও গাড়ি। পরে স্থানীয়রা তাদের ছাড়িয়ে আনেন।’

পুলিশ কর্মকর্তা আতিকুর বলেন, ‘তাদের মারধর করা হয়েছে। উদ্ধার করে নেয়া হয়েছে হাসপাতালে। হামলার কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত পরে জানানো হবে।’

অভিযোগের বিষয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী নোবেল কুমার সিংহ বলেন, ‘আমার লোকজন সাংবাদিকদের ওপর হামলা করেনি। স্বতন্ত্র প্রার্থী আতাউর রহমানের সমর্থকরা তাদের মারধর করেছে। হামলা হয়েছে আমার কর্মীদের ওপরও। চার কর্মী-সমর্থককে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে।’

কেন এই হামলা এই প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘মণ্ডলপাড়ায় মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থীর উঠান বৈঠক ছিল। আমার উঠান বৈঠক ছিল পাশের পাড়ায়। কিন্তু সেখানে লোকজন জড়ো করতে বাধা দেয়া হয়। এক পর্যায়ে লাঠিসোঁটা নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা হামলা করে।’

নৌকার প্রার্থীর অভিযোগ প্রসঙ্গে স্বতন্ত্র প্রার্থী আতাউর রহমান বলেন, ‘আওয়ামী লীগের প্রার্থী অপপ্রচারে জড়িত। সাংবাদিকদের ওপর তার কর্মী-সমর্থকের হামলার প্রশ্নই ওঠে না। আহত ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের সাংবাদিকই জানিয়েছে, তার ওপর হামলা করেছে নৌকার সমর্থকরা।’

© এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ফেসবুকে শেয়ার করুন

More News Of This Category
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin
x