ঘরে ফিরলেন হেভিওয়েট মুকুল রায় ! ঘরে ফিরলেন হেভিওয়েট মুকুল রায় ! – Narail news 24.com
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৭:০৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
সবুজ বাংলাদেশ গড়তে সারাদেশে সাধ্যমতো গাছ লাগাতে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান সেন্টমার্টিনে মিয়ানমারের গোলাগুলি, প্রয়োজনে জবাব দেয়া হবে – ওবায়দুল কাদের ঈদের ছুটিতে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে অধিদপ্তরের যে নির্দেশনা মানতে হবে অবসরকালীন সময়ে জন্মভূমি মধুমতী পাড়ে আসব – সেনা প্রধান জেনারেল শফিউদ্দিন আহমেদ কালিয়ায় গুলিতে আহত-২, বাড়ীঘর ভাংচুর ও লুটপাটের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ বাংলাদেশের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিনিয়োগ প্রত্যাশা প্রধানমন্ত্রীর একটি আইএমইআই নম্বরে দেড় লাখ মোবাইল ফোন ! নড়াইলে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে একজনকে হত্যার অভিযোগ নড়াইলে সেমিনার অনুষ্ঠিত নড়াইলে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ভাইস-চেয়ারম্যনদের দায়িত্ব গ্রহন

ঘরে ফিরলেন হেভিওয়েট মুকুল রায় !

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১১ জুন, ২০২১

নড়াইল নিউজ ২৪.কম আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

সকল জল্পনার অবসান ঘটিয়ে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) ছেড়ে ফের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরতে চলেছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য রাজনীতির হেভিওয়েট নেতা মুকুল রায়। শুক্রবার (১১ জুন) দুপুরেই পুত্রকে সঙ্গে নিয়েই নিজের সাবেক দলে ফিরলেন তিনি।

কলকাতার সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার জানিয়েছে, শুক্রবার দুপুরে পুত্রকে সঙ্গে নিয়ে তৃণমূল ভবনে যাবেন মুকুল। সেখানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ তৃণমূলের প্রথম সারির নেতাদের উপস্থিতিতে মুকুল এবং ছেলে শুভ্রাংশুর রায় তৃণমূলে যোগ দেবেন।

এদিকে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পর ‘নীতিগত প্রশ্নে’ সদ্য-জেতা বিজেপির বিধায়ক পদ ছেড়ে দিতে পারেন মুকুল। কারণ ৭৫ জন বিজেপি বিধায়কের মধ্যে মুকুল একা দল ছাড়লে স্বভাবতই তার বিরুদ্ধে দলত্যাগ বিরোধী আইন প্রযোজ্য হবে। আর সেই ঝুঁকি এড়াতেই মুকুল ছেড়ে দেবেন বিজেপির মনোনয়নে জেতা বিধায়ক পদ।

সংবাদমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, তৃণমূল কংগ্রেসে ফেরার পর মুকুল রায়কে রাজ্যসভার সাংসদ করতে পারেন মমতা। সেই সম্ভাবনাও যথেষ্ট জোরালো। পাশাপাশি দলীয় সংগঠনে মুকুলকে দায়িত্বশীল পদও দেওয়া হতে পারে।

শুক্রবার পুত্র শুভ্রাংশু-সহ ঘনিষ্ঠদের নিয়ে একটি বৈঠক করেন মুকুল। সেখানেই তার সিদ্ধান্ত এবং ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা নিয়ে আলোচনা করেন তিনি। সূত্রের খবর, সেখানেই সিদ্ধান্ত হয়ে যায়। তৃণমূল শিবিরেও খবর চলে য়ায়। তখনই ঠিক হয়, তৃণমূল ভবনে দলীয় বৈঠক করবেন মমতা। সেখানেই মুকুল-সহ অন্যদের দলের নেওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্তে সিলমোহর পড়বে। ওই বৈঠকে দলের প্রথমসারির নেতাদের থাকতে বলা হয়েছে।

২০১৭ সালে তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন মুকুল রায়। তবে তার অবসান ঘটল ২০২১ সালে এসে। মাঝখানের সময়টাতে বিজেপিতে মুকুল খুব একটা স্বচ্ছন্দ ছিলেন না। লোকসভা ভোটে সাংগঠনিক সাফল্যের পরেও তাকে বিজেপির ভেতরে সেভাবে ‘মর্যাদা’ দেওয়া হয়নি।

মুকুলের ঘনিষ্ঠ সূত্রের খবর, ২০২০ সালের মাঝামাঝি মুকুল বিজেপি ছাড়ার বিষয়ে মনস্থির করে ফেলেছিলেন। কিন্তু শেষমুহূর্তে তিনি মতবদল করেন। তবে তারপর থেকে তিনি মমতা বা তৃণমূল সম্পর্কে একটিও কটূবাক্য উচ্চারণ করেননি। সেই সময় থেকেই মুকুল-তৃণমূল সমীকরণ বদলাতে শুরু করে।

মুকুল বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরলে সাম্প্রতিক কালে সম্ভবত সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক বার্তা দিতে পারবে তৃণমূল। কারণ, তৃণমূল থেকে বিজেপিতে হেভিওয়েট নেতাদের যাওয়া শুরু হয়েছিল মুকুলকে দিয়েই। তারপর একে একে তৃণমূল থেকে বিজেপিতে নাম লিখিয়েছিলেন অর্জুন সিং, সব্যসাচী দত্ত, শোভন চট্টোপাধ্যায়রা। আর ভোটের আগে শুভেন্দু অধিকারী, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় প্রমুখ।

মুকুল তৃণমূলে ফিরে এলে তাদের কাছেও একটা বার্তা যাবে। একইসঙ্গে বোঝানো যাবে যে তৃণমূল থেকে গিয়ে বিজেপির সঙ্গে রাজনীতি করা যায় না।

© এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ফেসবুকে শেয়ার করুন

More News Of This Category
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin
x