গাছে বেঁধে মা-মেয়েকে নির্যাতন গাছে বেঁধে মা-মেয়েকে নির্যাতন – Narail news 24.com
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:২১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
সবার সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করুন – প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ পরিচালনায় মসৃণভাবে এগিয়ে যাচ্ছেন – মার্কিন থিঙ্ক-ট্যাঙ্ক জন্মটাই যাদের অগণতান্ত্রিক, সেই বিএনপিই গণতন্ত্রের কথা বলে মন্তব্য পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নড়াইলে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল বাসচলকের, আহত ১৯ লোহাগড়ায় মোটরসাইকেলের জন্য আত্মহত্যা ! কিশোর অপরাধীদের মোকাবেলায় বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী – মাহবুব হোসেন ব্রাজিল বাংলাদেশ থেকে সরাসরি তৈরি পোশাক আমদানি করতে পারে – প্রধানমন্ত্রী সৌদিতে চাঁদ দেখা যায়নি , বুধবার পবিত্র ঈদুল ফিতর লোহাগড়ায় নদীতে পড়ে নিখোঁজ শিশুর সন্ধান মেলেনি নড়াইলে নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ 

গাছে বেঁধে মা-মেয়েকে নির্যাতন

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২২

নড়াইল নিউজ ২৪.কম ডেস্ক:

রংপুরের পীরগাছা উপজেলার পারুল ইউনিয়নের একটি গ্রামে এক মহিলা ও তার মেয়েকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। নির্যাতনের পরিপ্রেক্ষিতে পীরগাছা থানায় বৃহস্পতিবার ১৭ জনের নামে মামলা হয়েছে।এ ঘটনায় পুলিশ ছয়জনকে আটক করা হয়েছে।

আটকরা হলেন- পীরগাছার পারুল ইউনিয়নের আনন্দী ধনিরাম গ্রামের মৃত গফফার মিয়ার ছেলে জিয়াউর রহমান (৩৫), শামসুম হকের স্ত্রী রুপালী বেগম ওরফে রুপভান (৩৫), নূর ইসলামের স্ত্রী জোসনা বেগম (৩৮), নূর হোসেনের স্ত্রী রাহেনা বেগম (২৬), রুবেল মিয়ার স্ত্রী রুমানা বেগম (২৫) এবং মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী দুলালী বেগম (৩০)।

গত ১২ জানুয়ারির এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে শুক্রবার। এরপর বিষয়টি জানাজানি হয়।
নির্যাতনের শিকার নারীর স্বামী জানান, গত বুধবার সকালে প্রতিবেশী জিয়ারুল ইসলাম ও তার লোকজন তাদের (শাজাহান) জমি দখল করে গাছ কাটতে শুরু করে। তারা তাতে বাধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে জিয়ারুল ও তার লোকজন তার স্ত্রী ও মেয়েকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন চালায়।

তিনি আরও জানান, নির্যাতনের সময় গ্রামের লোকজন ৯৯৯ নম্বরে কল করলে পীরগাছা থানা থেকে পুলিশ গিয়ে দুজনকে উদ্ধার করে। তাদের পীরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

নির্যাতনের শিকার নারী বলেন, ‘আমাকে যখন গাছোত বান্দে, তখন অনুরোধ করছি। মানে নাই; খুব মারছে। ব্যথায় উঠপের (উঠতে) পাইনে। আমি ওমার (ওদের) বিচার চাই।’

স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল খালেক বলেন, ‘বুধবার এ ঘটনা ঘটেছে। শুনছি শুক্রবার সকাল থোকি ভিটিওটা (ভিডিও) সবার মোবাইলে মোবাইলে। ঘটনাটি দুঃখজনক। আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

এ ঘটনায় অভিযুক্ত জিয়ারুলকে ফোন করেও পাওয়া যায়নি। তার নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।
পীরগাছা থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুস শুকুর মিয়া বলেন, ‘এ ঘটনায় একটি এজাহার হয়েছে। আমরা পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছি; তদন্ত হচ্ছে। অপরাধী যে-ই হোক, আইনের আওতায় আনা হবে।’

রংপুরের সহকারী পুলিশ সুপার (সি সার্কেল) আশরাফুল আলম শনিবার বিকেলে ছয়জনকে আটকের তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

© এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ফেসবুকে শেয়ার করুন

More News Of This Category
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin
x