কিস্তির টাকা না পেয়ে বৃদ্ধকে পেটানোর অভিযোগ ব্র্যাক কর্মীর বিরুদ্ধে, আত্মহত্যার চেষ্টা ! কিস্তির টাকা না পেয়ে বৃদ্ধকে পেটানোর অভিযোগ ব্র্যাক কর্মীর বিরুদ্ধে, আত্মহত্যার চেষ্টা ! – Narail news 24.com
বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৪৩ পূর্বাহ্ন

কিস্তির টাকা না পেয়ে বৃদ্ধকে পেটানোর অভিযোগ ব্র্যাক কর্মীর বিরুদ্ধে, আত্মহত্যার চেষ্টা !

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল, ২০২৪
ছবি: নড়াইল নিউজ ২৪.কম

স্টাফ রিপোর্টার, লোহাগড়া, নড়াইল

নড়াইলের লোহাগড়ায় কিস্তির টাকা না পেয়ে রবিউল ইসলাম মোল্যা (৭৫) নামের বৃদ্ধকে পিটিয়ে আহত করেছে সেলিম হোসেন নামে এক ব্র্যাক কর্মী। এ ঘটনার পর ওই বৃদ্ধ ক্ষোভে-দুঃখে কীটনাশক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় বৃদ্ধ’র স্ত্রী রাবেয়া বেগম বাদী হয়ে লোহাগড়া থানায় একটি অভিযোগপত্র দায়ের করেছেন বলে থানা সূত্রে জানাগেছে।

লোহাগড়া থানায় দায়েরকৃত অভিযোগে বলা হয়েছে, গত (৩১ মার্চ) দুপুরের দিকে ব্র্যাক লোহাগড়া ব্রাঞ্চের ম্যানেজার জামিরুল রহমানের নির্দেশে মাঠ কর্মী সেলিম হোসেন পার-মল্লিকপুর গ্রামের রবিউল ইসলাম মোল্যাকে লোহাগড়া পৌর শহরের মশাঘুনী এলাকায় অবস্থিত ব্রাক অফিসে কিস্তির টাকার জন্য ফোন করে ডেকে নিয়ে আসেন। এরপর মাঠ কর্মী সেলিম ঋণ গ্রহীতা রবিউল ব্র্যাক অফিসে আসলে তার নিকট কিস্তির টাকার জন্য মানসিক ভাবে চাপ দিয়ে নানা কুরুচিপূর্ণ কথা বলতে থাকেন।
একপর্যায়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটা-কাটি হলে সেলিম বৃদ্ধ রবিউল ইসলামের চোখে মুখে কিল,ঘুসি, চড়-ধাপ্পড় মেরে বলেন, ‘টাকা দিতে না পারলে বিষ কিনে খাও, মরে গেলে আর কিস্তির টাকা দেওয়া লাগবে না’। অবস্থা বেগতিক দেখে রবিউল কিস্তির টাকা পরিশোধের কথা দিয়ে ব্র্যাক অফিস থেকে নিজ বাড়িতে ফিরে আসেন।

ব্যাক কর্মির অপমান সহ্য করতে না পেরে ক্ষোভে-দু:খে ঋনগ্রহিতা রবিউল আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন এবং তার বাড়িতে থাকা কীটনাশক পান করেন। পরিবারের সদস্যরা হঠাৎ রবিউলের অবস্থা সংকটাপন্ন দেখে তাকে লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এদিকে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সোমবার বিকালে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর স্ত্রী রাবেয়া বেগম বাদী হয়ে সোমবার রাতে ম্যানেজার জামিনুর রহমান ও মাঠ কর্মী সেলিমের নামে থানায় একটি অভিযোগপত্র দায়ের করেছেন।

রাবেয়া বেগম অভিযোগ করে বলেন, ‘ ব্র্যাক থেকে লোন নিয়েছি। ১টা কিস্তি দিয়েছি। ২টা কিস্তির জন্য ২দিন সময় চেয়েছি। তারপর যদি টাকা না দিতে পারি, তার জন্য দেশে প্রচলিত আইন আছে, সেই আইন মোতাবেক ব্যবস্থা নিবেন। ব্রাককর্মী সেলিম তো ৭৫ বছর বয়সী একজন মানুষের গায়ে হাত দিতে পারেন না। আমি এ ঘটনার বিচার চাই ‘।

এ ঘটনার পর সোমবার সকালে গণমাধ্যম কর্মীরা ব্র্যাক অফিসে গিয়ে খোঁজ করেও ম্যানেজার জামিরুল রহমান ও মাঠ কর্মী সেলিমকে পাওয়া যায় নাই। মোবাইল ফোনে ফোন দিলেও তারা ফোন রিসিভ করে নাই।

নড়াইল জেলা ব্রাকের সমন্বয়কারী জাহিদুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ‘ এমন আচরণ করা অপরাধ, এটা ঠিক না। তবে তদন্তকরে ঘটনার সত্যতা পেলে সেলিমের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)কাঞ্চন রায় মঙ্গলবার অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘তদন্ত করে আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

© এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ফেসবুকে শেয়ার করুন

More News Of This Category
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin
x