কালিয়ায় বৃদ্ধাকে পুড়িয়ে হত্যা ঘটনায় ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিলো পুত্রবধুরা কালিয়ায় বৃদ্ধাকে পুড়িয়ে হত্যা ঘটনায় ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিলো পুত্রবধুরা – Narail news 24.com
সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০৮:৫৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
লোহাগড়ায় রেল প্রজেক্টের চোরাই মালসহ গ্রেফতার ১ কালিয়ায় ৬ ক্লিনিককে জরিমানা,অপারেশন থিয়েটার সিলগালা নড়াইলে ক্লাইমেট স্মার্ট কৃষি প্রযুক্তি মেলা শুরু ভবন নির্মাণে বিল্ডিং কোড অনুসরণ নিশ্চিত করতে ডিসি সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান নড়াইলে জি আর প্রকল্পের হরিলুট ! নড়াইলে স্বাস্থ্য বিভাগের অভিযান: ল্যাবস্টার ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধ ঘোষনা লোহাগড়ায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৩ নড়াগাতীতে ট্রলি থেকে ছিটকে পড়ে প্রাণ গেল হেলপারের নড়াইলে স্মরণসভা সভা অনুষ্ঠিত যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় সশস্ত্র বাহিনীকে সক্ষম করে তোলা হচ্ছে – প্রধানমন্ত্রী

কালিয়ায় বৃদ্ধাকে পুড়িয়ে হত্যা ঘটনায় ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিলো পুত্রবধুরা

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ৫ জুন, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার:

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার জামরিলডাঙ্গা গ্রামের ৭৪ বছরের বৃদ্ধা সালেহা বেগমকে পুড়িয়ে হত্যার রহস্য বেরিয়ে এসেছে। নিহত সালেহা বেগমের দুই পুত্রবধু কুলসুম ও নারগিস আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিয়েছেন। নড়াইলের আমলী আদালত কালিয়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোরশেদুল আলমের আদালতে এ জবানবন্দী প্রদান করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কালিয়া থানার ওসি (তদন্ত) মানুল্লাহ আর বারী জানান, শুক্রবার দুুপুরে নিহত সালেহা বেগমের পুত্রবধু আরিফ খন্দকারের স্ত্রী কুলসুম ও বৃহস্পতিবার দুুপুরে অপর পুত্রবধু ইরুপ খন্দকারের স্ত্রী নারগিস স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছেন।

নিহতের ছেলে ইরুপ খন্দকার, ইরুপ খন্দকারের জামাই মিরাজ ও আরিফ খন্দকারের ছেলে রাশেদ খন্দকার পুড়িয়ে হত্যা করার কথা স্বাকীর করে জবানবন্দী দিয়েছে বলে তদন্তকারী কর্মকর্তা জানান। বৃদ্ধার ছেলে ৯মাস আগে নিহত আরিফ খন্দকার হত্যা মামলার আসামীদের শাযেস্তা করতেই এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

অবশ্য বৃদ্ধার পুত্রবধু ইরুপ খন্দকারের স্ত্রী নারগিস দাবি করেন, পুলিশ ভয় দেখিয়ে জবানবন্দী দিতে বাধ্য করেছে।

জানাগেছে, নড়াইলের কালিয়া উপজেলার পিরোলী ইউনিয়নের জামলিডাঙ্গা গ্রামের মৃত নূর আলী খন্দকারের স্ত্রী সালেহা বেগমকে (৭৪) গত ২২ মে রাতে পুড়িতে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। তিনি দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ্য অবস্থায় বাড়ির বারান্দায় পাটকাঠি দিয়ে ঘেরা কক্ষে রাত্রিযাপন করতেন।

পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় নিহতের মেয়ে মিনি বেগম বাদী হয়ে ১১জনের নাম উল্লেখ্যসহ অজ্ঞাতনামা ৬/৭জনকে আসামী কলে কালিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১১, তাং-২৫/০৫/২১ইং।

ঘটনার পর নড়াইলের পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায় (পিপিএম বার) সহ পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ছবি:- নড়াইল নিউজ ২৪.কম

নিহত সালেহা বেগমের ছেলে ইরুপ খন্দকার দাবি করেন, তার ভাইয়ের হত্যাকারীা জেল থেকে বেরিয়ে এসে বৃদ্ধ মাকে হত্যা করেছে। কি কারনে হত্যা করেছে এমন প্রশ্নের জবাবে ইরুপ খন্দকার বলেন, ‘ আমার ভাই আরিফ খন্দকার হত্যা মামলাটি মিমাংসা না করায় আমার মাকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে।

এলাকার বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ জানান, বৃদ্ধা সালেহা বেগম তিন বছর ধরে প্যারালাইজড হয়ে অসুস্থ্য হয়ে পড়ে আছেন। এলাকায় কারও সাথে কোন শত্রুতা নেই। পরিকল্পিত ও নির্মম এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় প্রকৃত দোষীদের সনাক্ত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন।

আরও পড়ুন : ঘুমন্ত বৃদ্ধাকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কালিয়া থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ আমানুল্লাহ আর বারী বলেন, ‘ ঘটনার পর মামলাটি বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে তদন্তকাজ চালানো হয়েছে। নিহতেরত দুই পুত্রবধু নাগরিস ও কুলসুমকে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের নাম প্রকাশ করেছে। সে মোতাবেক আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিয়েছে। প্রকৃত দোষীরা যাতে আইনের আওতায় আসে সে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।’

© এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ফেসবুকে শেয়ার করুন

More News Of This Category
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin
x